আজ ৪ঠা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৭ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

আগামী প্রজন্মকে ইসলাম ও দেশবিরোধী বানানোর রাষ্ট্রীয় ষড়যন্ত্র রুখে দেওয়া হবে: নোমান আহমাদ

আবদুল ওয়াহাব, নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ বাংলাদেশের সংখ্যাগুরু সম্প্রদায় মুসলমানদের তাহযিব তামাদ্দুন বিলুপ্ত করে তাদেরকে ইসলাম ও দেশবিরোধী করে তোলার জন্য রাষ্ট্রীয়ভাবে আয়োজন করা হচ্ছে বলে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের কেন্দ্রীয় প্রশিক্ষণ সম্পাদক মুহাম্মদ নোমান আহমাদ।
গতকাল ১৩ জুলাই রোজ বৃহস্পতিবার বাদ আসর “পাঠ্যপুস্তকে ইসলাম ও দেশবিরোধী ভাবধারা সংযোজনের ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে” ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন নোয়াখালী জেলা (উত্তর) শাখা আয়োজিত বিক্ষোভ মিছিল পরবর্তী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপর্যুক্ত কথা বলেন।
তিনি বলেন, পাঠ্যপুস্তকের মাধ্যমে ছাত্র ছাত্রীরা নিজের, দেশ ও জাতির পরিচয় পেয়ে থাকে। নিজ ধর্ম ও সংস্কৃতির সাথে পরিচিত হয়। কিন্তু ব্রাহ্মণ্যবাদী চক্রের তল্পিবাহক এদেশের সরকারগুলো জাতিকে পঙ্গু করার জন্য পাঠ্যপুস্তকে ইসলাম ও দেশবিরোধী গল্প কবিতা সংযোজন করেছিল। পীর সাহেব চরমোনাইর নেতৃত্বে ইশা ছাত্র আন্দোলনসহ তাওহীদি জনতার গণ আন্দোলনে সরকার তা পরিবর্তন করে। এখন আবার কতিপয় উচ্ছিষ্টভোগী রাম-বামদের প্ররোচনায় সরকার শিক্ষা সিলেবাস পরিবর্তনের দিকে ঝুঁকছে বলে গণমাধ্যমে সংবাদ আসছে। আমরা সরকারকে এসব অপরিনামদর্শী পদক্ষেপ গ্রহণের ব্যাপারে সতর্ক করে দিচ্ছি। মুসলমানের সন্তানকে পড়াশুনার নামে নাস্তিক্যবাদী ভাবধারায় গড়ে তোলার মাধ্যমে ইসলাম ও দেশবিরোধী করার এমন অপচেষ্টা ইশা ছাত্র আন্দোলন কোনক্রমেই বাস্তবায়িত হতে দেবেনা ইনশাআল্লাহ।
জেলা সাধারণ সম্পাদক আবদুল ওয়াহাবের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ মিছিল পরবর্তী সমাবেশে সংগঠনের কেন্দ্রীয় শূরা সদস্য এইচ এম সাখাওয়াত উল্লাহ বলেন, শিক্ষানীতি ২০১০ এদেশের শিক্ষাব্যবস্থার মেরুদণ্ড ভেঙ্গে দিয়েছে। অবিলম্বে এটি বাতিল করতে হবে।
জেলা সভাপতি মুহাম্মদ সাদ্দাম হোসাইন বলেন, সরকার ও গুটিকয়েক নাস্তিকদের বহর দিবাস্বপ্নে দেখে, এদেশের মুসলমানদের ঘুমের ঘোরে রেখে তাদের ষড়যন্ত্র বাস্তবায়ন করতে পারবে। ইশা ছাত্র আন্দোলন তাদের এমন আকাশ কুসুম স্বপ্ন ধুলিস্যাত করে দিতে ২৪ ঘন্টা প্রস্তুত। অবিলম্বে পাঠ্যবই পরিবর্তনের ষড়যন্ত্রের সাথে জড়িতদের বিচারের আওতায় না আনলে প্রত্যন্ত অঞ্চলেও আন্দোলনের দাবানল ছড়িয়ে পড়বে। এসময় তিনি আগামী ২০ জুলাই পাঠ্যবই ইস্যুতে জনসচেতনতা তৈরীর লক্ষ্যে জেলা আওতাধীন শাখাগুলোতে মানব-বন্ধনের কর্মসূচি ঘোষণা করেন।
পাঠ্যবই নিয়ে ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে আয়োজিত বিক্ষোভ মিছিলটি নোয়াখালীর প্রধান বাণিজ্য কেন্দ্র চৌমুহনীর পাবলিক হল গেট হয়ে চৌরাস্তা প্রদক্ষিণ করে। এসময় বিপুল সংখ্যক জনতা উৎসুক হয়ে মিছিল পর্যবেক্ষণ করে।

আপনার মতামত দিন
0Shares

স্যোসাল মিডিয়াতে দেখুন আমাদের সংবাদ

Follow us on Facebook Follow us on Twitter Follow us on Pinterest 0

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     একই ক্যাটাগরিতে আরো সংবাদ