আজ ১০ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৪শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

আমাদের নবী (সা:) শুধু এতিম ছিলেন না বরং একজন প্রধানমন্ত্রীও ছিলেন: মুফতি ফয়জুল করীম


কিশোরগঞ্জ থেকে আশরাফ আলী সোহান:
গতকাল ২৬ আগষ্ট শনিবার কিশোরগঞ্জ সদর থানাধীন রশিদাবাদ মাহফিলে নায়েবে আমিরুল মুজাহিদীন পীরে কামেল চরমোনাই মুফতি ফয়জুল করীম দা. বা. আগমন করেন। পীরে কামেল চরমোনাই এর আগমনে সকাল থেকে এলাকায় লোক লোকারণ্য হয়ে যায়। মুফতি ফয়জুল করীম দুপুর ৩টায় বয়ান রাখেন। 
তিনি বলেন, আমরা শুধু আমাদের প্রিয় নবী করীম (সা:) কে এতিম নবী বলে পরিচয় দেই, কিন্তু আমাদের নবী শুধু এতিম নবী নয়, বরং আমাদের নবী করীম সা: একজন রাজাও ছিলেন, ছিলেন একজন শ্রেষ্ঠ সেনাপতি। তবে আমরা কেন শুধু এতিম নবীর পরিচয় দেই, আমরা একজন প্রধানমন্ত্রী নবীর পরিচয় দিতে পারি না। ইসলাম শুধু ব্যক্তি বা সামাজিক জীবনের মধ্যে সীমাবদ্ধ নয় বরং রাষ্ট্রীয় শাসন ব্যবস্থার পূর্ণাঙ্গ ব্যবস্থাও আছে।
তিনি বয়ানে বলেন, আমাদের জীবন কর্মে আল্লাহ নবীর আদর্শ নাই। আমরা মুজিব সেনা, আমরা জিয়ার সেনা দাবি করি কিন্তু আমরা যে নবীর সেনা সেটাতো বলি না। আমাদের সবচেয়ে বড় পরিচয় আমরা মুসলমান। আমাদের ব্যক্তি জীবন, পারিবারিক জীবন, রাজনৈতিক জীবন সর্বস্তরে ইসলাম থাকতে হবে তবেই আখিরাতে মুক্তির আশা করা যায়। প্রবাদ বাক্য আছে, যার সাথে যার মুহাব্বত তার সাথে তার কিয়ামত। আজকে আমাদের যুব সমাজ খেলোয়ারের মত চুল রাখে, তার মতো পোষাক পরে। কিয়ামতের দিন প্রত্যেক ব্যক্তি তার নেতার সাথে থাকবে। আপনার নেতা যে প্রিয় নবী করীম সা: হয় তবে আপনি তাঁর সাথেই জান্নাতে যাবেন। আর আপনার নেতা যদি, আপনার আদর্শ যদি খেলোয়ার হয়, নাস্তিক হয় তবে হাশরের ময়দানে আপনি তার সাথেই তার অবস্থানে যাবেন।
তিনি বলেন, আপনাকে চরমোনাই যেতে হবে না, আপনাকে আমার মুরিদ হতে হবে না বরং আপনি আল্লাহর পথে আসুন, আল্লাহর বিধান মেনে চলুন। 
দেখা যায় দুপুরের প্রচন্ড রৌদ্দের মাঝে জনতায় ভরপুর মাঠ এবং চারপাশ। শেষ পর্যায় বয়ানে তিনি নিজেও কাদেন সকল তৌহিদী জনতাকে কাঁদিয়ে মোনাজাতের মাধ্যমে মাহফিল শেষ করেন।

আপনার মতামত দিন
1Shares

স্যোসাল মিডিয়াতে দেখুন আমাদের সংবাদ

Follow us on Facebook Follow us on Twitter Follow us on Pinterest 0

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     একই ক্যাটাগরিতে আরো সংবাদ