আজ ৩রা মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৭ই জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ইসলামী আন্দোলন ভোগের রাজনীতিতে বিশ্বাস করে না: মুফতী ফয়জুল করীম

চট্টগ্রাম : ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর সিনিয়র নায়েবে আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করীম বলেছেন, ইসলাম একটি সর্বশ্রেষ্ঠ জীবনাদর্শ, একটি পূর্ণাঙ্গ জীবনব্যবস্থা এবং একটি কল্যাণকর ধর্ম। এ জীবনব্যস্থা শুধুমাত্র মুসলমানদের জন্য কল্যাণকর তা নয়, দুনিয়ার তাবৎ মানবজাতি এমনকি সমস্ত সৃষ্টিজগতের জন্য মহানবী (সা.) ও তাঁর প্রচারিত আদর্শ রহমত হিসেবে পৃথিবীতে প্রেরিত হয়েছে।
শুক্রবার (৭ জুলাই) বেলা ৩ ঘটিকায় চট্টগ্রাম মুসলিম ইউনিস্টিটিউট হলে আয়োজিত ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ চট্টগ্রাম মহানগরের কর্মী সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপর্যুক্ত কথা বলেন।
তিনি বলেন, আজকে একশ্রেণির মানুষ ইসলাম সম্পর্কে যাদের পড়াশোনা বলতে কিছুই নেই স্রেফ অনুমান ও ইসলাম বিদ্বেষ থেকে ইসলামী রাষ্ট্র ধারণা সম্পর্কে জনগণের মাঝে বিভ্রান্তি চড়াচ্ছে। ইসলামী রাষ্ট্র ধারণাকে সাম্প্রদায়িক ও বর্ণবাদী রাষ্ট্র হিসেবে চিত্রিত করছে। ইসলামী রাষ্ট্রে অমুসলিমদেরকে অমুসলিম বলা হয় না, জিম্মাদারি বলা হয়; যাদের জান-মালের নিরাপত্তা এবং ধর্মপালনের স্বাধীনতার জিম্মাদারি খোদ রাষ্ট্র পালন করে। ইসলামী রাষ্ট্রে অমুসলিমদের যে মর্যাদা ইসলাম দিয়েছে তা আধুনিক তথাকথিত ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্র দিতে পারেনি।

নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে নায়েবে আমীর বলেন, ইসলামের ভোগের বিরোধিতা করে। ক্ষমতা-অর্থ-বিত্ত, দুর্নীতি ও জুলুমের বিরুদ্ধে লড়াই করার শিক্ষা দেয়। ইসলাম একটি কল্যাণ ধর্ম, জনগণের কল্যাণ, সুস্থ সমাজ গঠন, ইনসাফ কায়েম, মানবাধিকার প্রতিষ্ঠা এবং শোষণবিহীন রাষ্ট্র গঠনের আহ্বান জানায়। কাজেই ক্ষমতায় আরোহণ ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের নেতা-কর্মীদের কাছে মুখ্য হতে পারে না, নীতিহীন রাজনীতি ও দুর্নীতিগ্রস্ত রাষ্ট্রব্যবস্থার পরিবর্তনের আন্দোলন গড়ে তোলাই ইসলামের প্রত্যেক প্রকৃত অনুসারীদের কাজ।
তিনি বলেন, ইসলামী হুকুমত কায়েমের নামে উগ্রবাদ ছড়িয়ে যুবসমাজকে বিভ্রান্তির অতল গহ্বরে ঢেলে দিচ্ছে এক শ্রেণির কুচক্রী মহল। অথচ জিহাদের ময়দানেও আত্মঘাতমূলক কর্মকাণ্ড ইসলাম পরিষ্কারভাবে নিষিদ্ধ করেছে। ইসলামে জিহাদ ও যুদ্ধনীতিকে সর্বোচ্চ শান্তিপূর্ণ উল্লেখ করেছে। ইতিহাস সাক্ষ্য, ভীষণ যুদ্ধাবস্থায়ও মুসলিম বাহিনীর চেষ্টা থাকতো শক্র-মিত্র উভয়ের যতটুকু সম্ভব ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে। অতএব আজকে যারা ধ্বংস ও অতর্কিত হামলা চালিয়ে বেসামরিক মানুষ হত্যা করে ইসলামের সৌন্দর্যকে কলুষিত করার চেষ্টা করছে, তাদের পেছনে কারা আছে সে সম্পর্কে সকলকে সজাগ হতে উদাত্ত আহ্বান জানান।
 

আপনার মতামত দিন
6.8K+Shares

স্যোসাল মিডিয়াতে দেখুন আমাদের সংবাদ

Follow us on Facebook Follow us on Twitter Follow us on Pinterest 0

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     একই ক্যাটাগরিতে আরো সংবাদ