আজ ৯ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৩শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

জাতিসংঘ বিশ্ব শান্তি প্রতষ্ঠায় ব্যর্থ: ইসলামী আন্দোলন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ

আইএবি নিউজ : ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের যুগ্ম মহাসচিব অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান বলেন, জাতিসংঘের নিরাপত্তা বৈঠকে রোহিঙ্গা ইস্যুতে কোনো সুষ্ঠ সমাধান ব্যতিত অধিবেশন শেষ করায় মুসলমানদের নিকট এখন স্পষ্ট ও পরিস্কার হয়ে গেছে যে, জাতিসংঘ বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় সম্পূর্ণ ব্যর্থ এবং তার প্রমাণ হলো জাতিসংঘের মিয়ানমারের কাছে অসহায় আত্মসমর্পন।
আজ ২৯ সেপ্টেম্বর শুক্রবার সকাল ১০টায় পুরানা পল্টনস্থ আইএবি মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি মাওলানা ইমতিয়াজ আলম-এর সভাপতিত্বে এবং নগর সেক্রেটারী মাওলানা এবিএম জাকারিয়ার সঞ্চালনায় বার্ষিক মজলিশে শুরার অধিবেশনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি আরো বলেন, পীর সাহেব চরমোনাই রহ. বর্তমান জাতিসংঘকে নিয়ে বলেছিলেন এই জাতিসংঘ হলো বাস্তবে মুসলিম নিধনসংঘ। আজ আমরা তাঁর এই কথার বাস্তবতা প্রত্যক্ষ করছি। যখন বিশ্ব মিডিয়ার মাধ্যমে সারা বিশ্বের জনগণ সরাসরি দেখছেন মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গা মুসলমানদের নির্যাতন, ধর্ষণ করে নির্মমভাবে জন সম্মুখে হত্যা করছে, তাদের বাড়ি-ঘর জালিয়ে দিচ্ছে এবং রোহিঙ্গা মুসলমানরা জীবনের ঝুকি নিয়ে বাংলাদেশের দিকে প্রবেশ করছে তখন জাতিসংঘ তা দেখেও মিয়ানমারের সরকারের ওপর কোনো চাপ সৃষ্টি করে রোহিঙ্গা মুসলিমদের হত্যা তাদের বাড়ি ঘর জালিয়ে দেয়া বন্ধ করতে পারছে না। বরং নিরাপত্তা পরিষদের দেশগুলো মিয়ানমার সরকারের এই গণহত্যাকে সরাসরি সমর্থন দিচ্ছে। অন্যদিকে বাংলাদেশ সরকারের র্কূটনৈতিক ব্যর্থতায় রোহিঙ্গা পরিস্থিতি ভয়ংকর রূপ নিতে যাচ্ছে। এমতোবস্থায় মুসলমানদের নতুন করে মুসলিম জাতিসংঘ গঠন করার সময় হয়েছে। অধিবেশনে রোহিঙ্গা পূর্ণবাসনের জন্য কফি আনান কমিশনের সুপারিশ বাস্তবায়নের দাবী জানানো হয়।
সভাপতির বক্তব্যে মাওলানা ইমতিয়াজ আলম বলেন, দেশের বাজারগুলো এখন আগুন, নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম আকাশছোঁয়া। চালের দাম কয়েক টাকা কমেছে বলে মন্ত্রীরা গলা ফাটালেও খুচরা বাজারে দাম কমেনি এক টাকাও, মন্ত্রী-এমপিদের লুটপাট, দূর্নীতির কারণে দেশের সামগ্রিক অর্থনীতি ভেঙে পড়েছে, বিদেশী বিনিয়োগকারীরা আর এই দেশে ব্যবসা করার সাহস পাচ্ছেনা, দেশি বিনিয়োগকারীরাও হাত গুটিয়ে নিয়েছছে। সরকারের ব্যর্থনীতির কারণে নতুন কর্মসংস্থানের সৃষ্টি না হওয়ায় বেকারত্বের কবলে পড়েছে যুবসমাজ। নতুন করে বিদ্যুৎ এর মূল্য বৃদ্ধির পায়তারার তীব্র নিন্দা জানান এবং তিনি মূল্য বৃদ্ধি না করে দূর্নীতি বন্ধের আহ্বান করেন। একদিকে সরকার মিথ্যা উন্নয়নের জোয়ারের বুলি আওড়াচ্ছে, অথচ ঢাকা মহানগরসহ সারা দেশের সড়ক-মহাসড়ক ও ব্রিজ কালভার্টের বেহাল দশা। সারাদেশে নারী-শিশু নির্যাতন ও পাশবিকতা থামছেই না, নারীরা ঘর থেকে বের হতে ভয় পাচ্ছে, কোমলমতি শিশু ও স্কুল-কলেজের মেয়েরাও আতঙ্কিত জীবন যাপন করছে। এভাবে দেশ চলতে পারেনা। তাই আমাদেরকে কুরআন সুন্নাহ অনুযায়ী ইসলামী রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার ঐক্যবদ্দ ভাবে কাজ করতে হবে। কারন, ইসলামেই একমাত্র সমাধান দিতে পারে এর থেকে মুক্তি পাওয়ার এবং সুন্দর-সুসৃংখল ভাবে জীবন-যাপন করার।
বার্ষিক মজলিশে শুরার অধিবেশনে ঢাকা মহানগর দক্ষিনের গত ১ (এক) বছরের সাংগঠনিক প্রতিবেদন পেশ করা হয় ও আগামী ১ (এক) বছরের সাগঠনিক কাজের পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়।

আপনার মতামত দিন
0Shares

স্যোসাল মিডিয়াতে দেখুন আমাদের সংবাদ

Follow us on Facebook Follow us on Twitter Follow us on Pinterest 0

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     একই ক্যাটাগরিতে আরো সংবাদ