আজ ১০ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৫শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

ডারউইনের বিবর্তনবাদে বিশ্বাসীরা একেকজন মানুষররুপী বানর: মুফতী ফয়জুল করীম

হাসান মাহমুদ, ফেনী (জেলা) সংবাদদাতাঃ মহান রাব্বুল আ’লামিন মানুষকে সৃষ্টি করেছেন মাটি দ্বারা এবং শেষে মাটিতেই গ্রোথিত করবেন এটা একজন মুসলমান হিসেবে আমাদের বিশ্বাস। আর একদল শিক্ষত শ্রেণীর মানুষ রয়েছে যারা এটা মানেনা, তারা বলে পৃথিবীটা এমনিতেই সৃষ্টি হয়ে গেছে এটার কোন সৃষ্টিকর্তা নেই তথা তারা বানর তত্ত্বে বিশ্বাসী। ডারউইনের বিবর্তনবাদে বিশ্বাসীরা একেকজন মানুষরুপি বানরে পরিণত হয়, তারা বাহ্যিক সুরতে মানুষ থাকলেও চিন্তায় চেতনায় একেকজন বানরে পরিণত হয়ে যায়। বানর যেমন খাওয়ার ক্ষেত্রে হারাম হালালের বাচ-বিচার করেনা তারাও তেমনি খাওয়ার সময় হারাম হালালের ধার ধারেনা, বানর যেমন দাড়িয়ে প্রস্রাব করে তারাও দাড়িয়ে প্রস্রাব করে, বানর যেমন অবাধ যৌন মিলনে লিপ্ত হয় তেমনি তারাও লিভ টুগেদারে মত্ত হয়, মোটকথা তাদের মাঝে বানরের সকল বৈশিষ্ট্যাবলী লক্ষকরা যায়।
গতকাল বৃহস্পতিবার (২৮ ডিসেম্বর) ফেনী সদরের লেমুয়া ইউনিয়নের অন্তর্গত রামপুর জামেয়া ইসলামিয়া ফয়জুল উলুম মাদরাসার উদ্ভোধন উপলক্ষে আয়োজিত ইসলামী সম্মেলনে তিনি উপরোক্ত কথা বলেন।
তিনি আরো বলেন, কোন কিছুই এমনি এমনি হয়না, যে জিনিস সৃষ্ট তার একজন স্রষ্টাও আছে আর মানুষ কখনও কোন কিছুর সৃষ্টিকর্তা হতে পারেনা আবিস্কারক হতে পারে। কারন জিনিসগুলোতো আগে থেকেই ছিল সে শুধু সেগুলোকে একসাথ করে ঐ জিনিসটি বানায়। যেমন মাইক তার একজন আবিস্কারক আছে, কারন তার জন্য প্রয়োজনীয় প্রদার্থগুলোতো আগে থেকেই মজুদ ছিল সে শুধু সেগুলোকে একসাথে করে মাইকটা আবিস্কার করেছে। এজন্য বলা হয় ডাইবেটিক, এইডস এর ঔষধ আবিস্কার হয়েছে কারন জিনিসগুলো অনেক আগে থেকেই ছিল আমরাই মাত্র খুজে পেলাম। তদ্রুপ এই তামাম দুনিয়ার একজন সৃষ্টিকর্তা আছেন আর তিনি হলেন আমার আল্লাহ। এখানে সৃষ্টিকর্তা এজন্যই যে দুনিয়ার জন্য প্রয়োজনীয় মেটারিয়ালগুলো আগে থেকেই মজুদ ছিলোনা আমার রব প্রথমে সেগুলো সৃষ্টি করেছেন তারপরই দুনিয়া সৃষ্টি করেছেন। তেমনিভাবে মহান রব আমাদের জন্য সুর্য, আলো, বাতাস ইত্যাদি তৈরি করেছেন তাই আমরা একজন মানুষও দুনিয়ায় না থাকলে তাদের কোন ধরনের ক্ষতি হবেনা কেননা আমাদের জন্য তাদেরকে সৃষ্টি করা হয়েছে তাদের জন্য আমাদেরকে নয়, আর বাতাস যদি না থাকে তাহলে মানুষের ১মিনিট বেচে থাকাও অসম্ভব হতো কেননা মহান রব বাতাসকে মানুষের জন্য সৃষ্টি করেছেন মানুষকে বাতাসের জন্য নয়।
তিনি ডারউইনের বিবর্তনবাদ ও সৃষ্টিকর্তার পরিচয় নিয়ে সারগর্ভ আলোচনা করেন। এসময় হাজার হাজার উৎসুক জনতা তার আলোচনা চাতক পাখির ন্যায় শ্রবন করে।
 

আপনার মতামত দিন
759Shares

স্যোসাল মিডিয়াতে দেখুন আমাদের সংবাদ

Follow us on Facebook Follow us on Twitter Follow us on Pinterest 0

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     একই ক্যাটাগরিতে আরো সংবাদ