আজ ৩রা মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৭ই জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

নারায়ণগঞ্জ সদর থানা শাখায় ইশা ছাত্র আন্দোলনের ২৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

তাজউদ্দীন আহমদ, নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি: বৃহস্পতিবার (৬ সেপ্টেম্বর) ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন নারায়ণগঞ্জ সদর থানা শাখার উদ্যোগে সংগঠনের ২৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী সমাবেশ ও র‍্যালী অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সমাবেশ ও র‍্যালীতে সদর থানা শাখার সভাপতি ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবী ছাত্র মুহাঃ মাহদী হাসানের সভাপতিত্বে উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইশা ছাত্র আন্দোলন না:গঞ্জ জেলা সভাপতি, ঢাকা আলিয়া মাদ্রাসার মেধাবী ছাত্র মুহাঃ ইমদাদুল হক। প্রধান বক্তা ছিলেন নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী আলহাজ্ব আবুল কালাম মুন্সী।
বিশেষ অতিথি ছিলেন সদর থানা শাখার সাবেক সভাপতি, ইসলামী আন্দোলন নাঃগঞ্জ শহর শাখার ছাত্র ও যুব বি. সম্পাদক মাও: আমির হোসেন।
প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, স্বাধীনতার পর থেকে প্রতিটি রাজনৈতিক দল ছাত্র আন্দোলনকে ক্ষমতার সিড়ি হিসেবে ব্যবহার করেছে। কিন্তু ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ছাত্র আন্দোলনকে এক ব্যতিক্রম ধারায় পরিচালিত করছে। তাদের লক্ষ হল ছাত্ররা লেখাপড়া করবে পাশাপাশি ইনসাফ ভিত্তিক সমাজগঠনে এগিয়ে আসবে। তাদের মূল উদ্দেশ্য থাকবে লেখাপড়ার পাশাপাশি খোদাভীরুতা অর্জন করা। হল দখল, টেন্ডার বাজি, চাঁদাবাজি, সন্ত্রাসী, নারী ধর্ষণ এসব ছাত্রের কাজ হতে পারেনা। এ কাজ যারা করে তারা ছাত্র নামে কলঙ্ক, সমাজ ও জতির দুশমন। তাই ইশা ছাত্র আন্দোলন ন্যায় ও ইনসাফ ভিত্তিক সমাজগঠনে অঙ্গিকারবদ্ধ।
প্রধান বক্তা তার বক্তব্যে বলেন, ডিসেম্বর মাসে নির্বাচন কমিশন একাদশ সংসদ নির্বাচন করার সম্ভাব্য তারিখ ঘোষণা করেছে। ইভিএম পদ্ধতি নিয়ে তিনি সমালোচনা করে বলেন, আপনি ইভিএম পদ্ধতির চিন্তা ভাবনা না করে নির্বাচনের জন্য সুষ্ঠু পরিবেশ সৃষ্টি করুন। যদি সুষ্ঠু পরিবেশ সৃষ্টি করতে পারলে ইসলামী আন্দোলন ৩০০ আসনে নির্বাচন করবে। তিনি ছাত্রদেরকে বলেন, তোমরা সজাগ থাকবে যে কোন অন্যায়, অবিচারে তোমাদের প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। শিক্ষাঙ্গণ ও সমাজ থেকে অন্যায়, অবিচার, জুলুম নির্যাতন নির্মূল করার দায়িত্ব ইশা ছাত্র আন্দোলনকে নিতে হবে। ইশা ছাত্র আন্দোলনই পারবে ন্যায় ভিত্তিক ও ইনসাফ ভিত্তিক সমাজ উপহার দিতে।
উক্ত অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন থানা আমেলা সহ সিটি, ওয়ার্ড, ইউনিয়ন ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের নেতৃবৃন্দ।

আপনার মতামত দিন
287Shares

স্যোসাল মিডিয়াতে দেখুন আমাদের সংবাদ

Follow us on Facebook Follow us on Twitter Follow us on Pinterest 0

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     একই ক্যাটাগরিতে আরো সংবাদ