আজ ৭ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২১শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

নৈতিক অবক্ষয়ের কারণেই নিষ্পাপ শিশু হত্যা সংগঠিত হচ্ছে -পীর সাহেব চরমোনাই

আইএবি নিইউজ :ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর আমীর মুফতী সৈয়দ মোহাম্মদ রেজাউল করীম- শায়েখ চরমোনাই বলেছেন, সম্প্রতি পত্রিকার পাতা উল্টালেই দেখা যায় মর্মান্তিক শিশু হত্যাসহ অগণিত হত্যাকান্ড, গুম ও নারী-শিশু নির্যাতন। যা একটি দেশের ভাবমূর্তি চরমভাবে ব্যাহত করছে ও অভ্যন্তরিণ দ্বন্ধ-সংঘাত সৃষ্টি হচ্ছে এবং পারস্পরিক সৌহার্দ, সম্পৃতি ও ভ্রাতৃত্ববন্ধনের পথ সংকচিত হয়ে আসছে।
তিনি বলেন, নৈতিক অবক্ষয় কত মারাত্মক আকার ধারণ করলে সন্তানের প্রতি চিরন্তন ভালবাসা ভুলে গিয়ে কখনও মা-বাবাই হয়ে ওঠছে সন্তানের হত্যাকারী, আবার সমাজ ও পরিবারের নানা বিরোধের জেরে অসৎ উদ্দেশ্য চরিতার্থ করতে প্রায়ই নিষ্পাপ শিশুদের টার্গেট বানিয়ে অপহরন ও হত্যা করছে একদল অপরাধীচক্র। পরিসংখানে দেখা যায় চলতি মাসের ১০ দিনেই ১০ জনের অধিক শিশু হত্যাসহ এ বছরের প্রথম ৫ মাসেই ১৩০ জন শুধু নিষ্পাপ শিশু হত্যাকান্ডের শিকার। এ হত্যাকান্ড কোন অবস্থাতেই মেনে নেয়া যায় না।
তিনি বলেন, স্বাধীনতার পর শিশু হত্যাসহ খুব-গুম বন্ধের জন্য অনেক আইন হয়েছে; আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে অনেক শক্তিশালী করা হয়েছে; কিন্তু দেশে সুশাসন, ন্যায়বিচার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির বিধান না থাকার কারণে কোন হত্যাকান্ডই বন্ধ হচ্ছে না। ইসলামী অনুশাসন ছাড়া যেকোন হত্যাকান্ড বন্ধসহ কোন অপরাধেরই লাগাম টেনে রাখা যাচ্ছে না। পারিবারিক, সামাজিক সচেতনতার অভাব, বিচার প্রক্রিয়ায় দীর্ঘসূত্রতা, পর্ণোগ্রাফী, মানসিক অস্থিরতা, বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কের কুপ্রভাব, মাদকাসক্তি, সম্পত্তি নিয়ে বিরোধ ও মানসিক অসুস্থতার কারণে শিশু হত্যাসহ অন্যান্য হত্যাকান্ড সংগঠিত হচ্ছে বলা হলেও মূলত ধর্মীয় মূল্যবোধ ও ইসলামী শিক্ষার অভাবই মূল কারণ। ইসলামী মূল্যবোধ ও ইসলামী শিক্ষার অভাবেই দেশের মানুষের নৈতিক অবক্ষয় দিন দিন বেড়ে চলছে।
শায়েখ চরমোনাই অবিলম্বে শিশু হত্যাকান্ড বন্ধসহ সকল হত্যা-খুন, গুম, নারী ও শিশু নির্যাতন বন্ধে সরকারকে কার্যকরি পদক্ষেপ নেয়ার পাশাপাশি আগামী ঈদে ঘরমূখী মানুষের নির্বিগ্নে যাতায়াতের সুব্যবস্থা ও জান-মালের সার্বিক নিরাপত্তা প্রদানে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়ার আহবান জানান।
রবিবার (১১ জুন) চরমোনাইতে আয়োজিত ১৫ দিনব্যাপি আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিলের সমাপনি দিবসে সভাপতির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।
ইফতার মাহফিলে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রেসিডিয়াম সদস্য অধ্যক্ষ মাওলানা সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল মাদানী, সিনিয়র নায়েবে আমীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করীম, ডা: মোখতার হোসাইন, সহকারী মহাসচিব আলহাজ্ব আমিনুল ইসলাম, মাওলানা আব্দুল কাদের, মাওলানা মুজিবুর রহমান, মাওলানা জাকারিয়া আল হামিদী, মাওলানা নিজামউদ্দীন ও মাওলানা গাজী জাফর ইমাম প্রমুখ।

আপনার মতামত দিন
0Shares

স্যোসাল মিডিয়াতে দেখুন আমাদের সংবাদ

Follow us on Facebook Follow us on Twitter Follow us on Pinterest 0

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     একই ক্যাটাগরিতে আরো সংবাদ