আজ ১২ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

বর্তমান সরকার নির্বাচন ব্যবস্থাকে ধ্বংস করে দিয়েছে: ইসলামী আন্দোলনের মহাসচিব

গতকাল ১৬ জানুয়ারি ২০১২১ শনিবার সকাল ১০ টায় নারায়ণগঞ্জ জেলা কার্যালয় (শিবু মার্কেট) ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ নারায়ণগঞ্জ জেলা সভাপতি মাওলানা আনোয়ার হোসেন জিহাদির সভাপতিত্বে ও সেক্রেটারি মাওলানা শাহ আলম কাচপুরীর সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মহাসচিব অধ্যক্ষ হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক কে এম আতিকুর রহমান ও দফতর সম্পাদক মাওলানা লোকমান হোসেন জাফরী।

প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, গত ৫ জানুয়ারি সরকার একতরফাভাবে ভোটারবিহিন তামাশার নির্বাচন করে জনগণের কাছে গ্রহণযোগ্যতা হারিয়েছে। সরকার নিজেদের ক্ষমতাকে পাকাপোক্ত করে রাখার জন্য একনায়কতন্ত্র শাসন চালু করে রেখেছে। বর্তমান নির্বাচনী ব্যবস্থায় জনগণের কোন আস্থা নেই। সরকারের মদদপুষ্ট নির্বাচন কমিশন সরকারের এজেন্ডা বাস্তবায়ন করতে আদেশপ্রাপ্ত। তাই এই ব্যর্থ কমিশন দ্বারা কোনো নির্বাচন সঠিকভাবে করা সম্ভব নয়। এই নির্বাচন কমিশন দ্বারা একটি ওয়ার্ডের নির্বাচনও সঠিকভাবে করা সম্ভব নয়৷ এতএব এই সরকারের অধীনে কোনো প্রকার সুষ্ঠ নির্বাচন আশা করা যায় না। তাই এই নির্বাচন কমিশনকে অনতিবিলম্বে পদত্যাগ দাবি করছি। পাশাপাশি সরকার রাষ্ট্র ব্যবস্থাকে একেবারে ধ্বংস করে দিয়েছে৷ দেশে খুন, গুম, দূর্নীতি,হত্যা, ধর্ষণ, মাদক, ইভটিজিং, মারামারি হানাহানির রাজত্ব চলছে। তাই আমরা এই সরকারের পদত্যাগ দাবি করছি এবং সকল দলের অংশগ্রহণে জাতীয় নির্বাচন দেওয়ার আহবান জানাচ্ছি।

বক্তব্য শেষে মহাসচিব ২০২১-২০২২ সেশনের নতুন কমিটি ঘোষণা করেন। এতে সভাপতি মাওলানা আনোয়ার হোসেন জিহাদী ও সেক্রেটারি মাওলানা শাহ আলম কাচপুরী নির্বাচিত হয়।

বিশেষ অতিথি কে এম আতিকুর রহমান তার বক্তব্যে বলেন, এদেশে শতকরা ৯২ ভাগ মুসলমান বসবাস করেন। কিন্তু দুখের মধ্যে বলতে হয় এদেশে ইসলামী হুকুমত নেই। নেই ইসলামের কোন অনুশাসন। এরই পরিপেক্ষিতে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ধারাবাহিকভাবে কাজ করে যাচ্ছে। এতএব আমরা বেশি বেশি করে জনগণকে ইসলামী হুকুমতের দিকে আহবান জানাই।

সভাপতির বক্তব্যে তিনি বলেন, কিছু কুলাঙ্গার আছে যারা বাংলাদেশের ওলামায়ে কেরামগণকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করছেন। ওয়াজ মাহফিলে হামলা করছে, মসজিদ মাদ্রাসাকে কটাক্ষ করছে। এটা কোন সভ্য দেশের কাজ নয়। সরকার যদি দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা না করে তাহলে তৌহিদি জনতা এটা মেনে নেবে না। তাদের দ্রুত শাস্তির আওতায় আনতে হবে।

উক্ত জেলা সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ নারায়ণগঞ্জ জেলার উপদেষ্টা আলহাজ্ব আলী হোসেন কাজল মাস্টার ও মাওলানা ছানাউল্লাহ নূরী, সহ-সভাপতি আলহাজ্ব আব্দুর রশিদ, জয়েন্ট সেক্রেটারি মুহাম্মদ সফিকুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক হাফেজ আমিন উদ্দীন।

সহযোগি সংগঠনের দায়িত্বশীলের মধ্যে বক্তব্য রাখেন শ্রমিক আন্দোলনের সভাপতি ওমর ফারুক, যুব আন্দোলনের সভাপতি মাওলানা শফিকুল ইসলাম, ইশা ছাত্র আন্দোলনের সভাপতি শিব্বির আহমাদ, শিক্ষক ফোরামের সাধারণ সম্পাদক কারী রেজাউল করিম, ওলামা মাশায়েখ আইম্মা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মুফতি আল আমিন শেখ প্রমুখ।

আপনার মতামত দিন
0Shares

স্যোসাল মিডিয়াতে দেখুন আমাদের সংবাদ

Follow us on Facebook Follow us on Twitter Follow us on Pinterest 0

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     একই ক্যাটাগরিতে আরো সংবাদ