আজ ১৯শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ভাষা দিবসে শরীয়তপুরে ইশা’র বর্ণমালা মিছিল ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

রবিবার (২১শে ফেব্রুয়ারী’২০২১ইং) আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর আলোকে ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন শরীয়তপুর জেলা শাখার উদ্যোগে বর্ণমালা মিছিল ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ইশা ছাত্র আন্দোলন শরীয়তপুর জেলা শাখার সভাপতি মুহাম্মাদ আশিক মাদবর এর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মাদ সাইফুল ইসলাম এর ব্যবস্থাপনায় উক্ত বর্ণমালা মিছিলে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ শরীয়তপুর জেলা শাখার সভাপতি মুফতি তোফায়েল আহমেদ কাসেমী। আরও উপস্থিত ছিলেন জাতীয় শিক্ষক ফোরাম এর কেন্দ্রীয় নেতা এস এম আহসান হাবীব, ইশা ছাত্র আন্দোলন এর কেন্দ্রীয় শূরা সদস্য হুসাইন মুহাম্মাদ ইলিয়াস ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ পালং থানা শাখার সেক্রেটারী আলহাজ্ব তানভীর আহমেদ বেলাল মোল্লা।

মিছিল পরবর্তী আলোচনায় নেতৃবৃন্দ বলেন, ৫২ আমাদের অহংকার, ৫২ আমাদের সংগ্রামের ইতিহাস, ৫২ এর ভাষা আন্দোলন আমাদের অন্যায়ের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে শেখায়, ৫২ আমাদের অধিকার আদায় করতে শেখায়, ৫২ আমাদের সাম্য প্রতিষ্ঠিত করার জন্য এক বিপ্লবী আওয়াজ তুলতে শেখায়।

১৯৫২ সালের ৮ ই ফাল্গুন, একুশে ফেব্রুয়ারি আমাদের ভাষা শহীদরা তাদের জীবন দিয়ে আমাদের জন্য বাংলাকে রাষ্ট্রভাষা হিসেবে প্রতিষ্ঠা করে গিয়েছেন। তাদের এই মহান আত্মত্যাগের বিনিময়ে আজ আমরা মায়ের ভাষা বাংলায়, স্বাধীনভাবে কথা বলতে পারি। কিন্তু আজ বড় পরিতাপের বিষয় এই যে, বাংলা ভাষার জন্য জীবন দিয়েও আজ আমাদের বাংলা ভাষা ধীরে ধীরে পরাধীনতার শৃঙ্খলে আবদ্ধ হচ্ছে, দেশের সর্বত্র পশ্চিমা ভাষা ও সংস্কৃতি আমাদের বাঙালির ইতিহাস, ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি কে গ্রাস করছে। অতএব আজকের এই দিনে আমাদের দাবি হচ্ছে দেশের সর্বত্র বিশুদ্ধ বাংলা ভাষার চর্চা বাধ্যতামূলক করতে হবে।

আলোচনায় নিম্মোক্ত ১০ দফা দাবি উত্থাপন করা হয়।

১। উচ্চ আদালতের রায় অবশ্যই বাংলা ভাষায় লিখতে হবে

২। ডাক্তারের ব্যবস্থাপত্র ঔষধের নাম ও বিবরণ বাংলায় লিখতে হবে

৩। রাষ্ট্রের সকল চুক্তি ও দলিল এর ক্ষেত্রে বাংলা মূল ভাষ্য হিসেবে  বিবেচনা করতে হবে

৪। উচ্চ শিক্ষার মাধ্যম হিসেবে বাংলাকে বাধ্যতামূলক  করতে হবে

৫। দেশ পরিচালনা, আইন, বিচার ও উচ্চ শিক্ষার সকল পরিভাষার বাংলা রূপান্তরের কার্যকর ব্যবস্থা নিতে হবে

৬। দেশের সকল সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের নামফলক বাংলায় লিখতে হবে

৭। রাষ্ট্রের সকল নথিপত্র বাংলায় লিখতে হবে

৮। পার্বত্য চট্টগ্রামের ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর ভাষা সংরক্ষণ ও বিকাশে কার্যকর ব্যবস্থা নিতে হবে

৯। ইংরেজি মিশ্রন করে বাংলাকে বিকৃতি করার অপপ্রয়াস আইন করে বন্ধ করতে হবে

১০। ইংরেজি মাধ্যম বিদ্যালয় সমূহে বাংলা চর্চাকে বাধ্যতামূলক করে জবাবদিহিতার আওতায় আনতে হবে।

উক্ত বর্ণমালা মিছিলে আরো উপস্থিত ছিলেন ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন শরীয়তপুর জেলা শাখার সহ-সভাপতি মুহাম্মাদ সাদ্দাম হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক মুহাম্মাদ মফিজুল ইসলাম, দাওয়াত ও প্রশিক্ষণ সম্পাদক মুহাম্মাদ মাসুম মিয়া, তথ্য গবেষণা ও প্রচার সম্পাদক এম এ রহিম, প্রকাশনা ও দফতর  সম্পাদক মুহাম্মাদ আবু নাঈম, অর্থ ও কল্যাণ সম্পাদক মুহাম্মাদ আবু বক্কর, বিশ্ববিদ্যালয় সম্পাদক মুহাম্মাদ রাসেল মিয়া, কওমি মাদ্রাসা সম্পাদক মুহাম্মাদ সাদ্দাম হোসেন, আলিয়া মাদ্রাসা সম্পাদক মুহাম্মাদ শফিকুল ইসলাম, স্কুল ও কলেজ সম্পাদক এম এফ শাহীন, সাহিত্য ও সংস্কৃতি সম্পাদক এইচ এম নুরে আলম সহ উপস্থিত ছিলেন জেলা ও থানা শাখার বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ।

 

আপনার মতামত দিন
0Shares

স্যোসাল মিডিয়াতে দেখুন আমাদের সংবাদ

Follow us on Facebook Follow us on Twitter Follow us on Pinterest 0

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     একই ক্যাটাগরিতে আরো সংবাদ