আজ ১৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৩০শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

ভোটের অধিকার নিশ্চিত ও লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরী করুন: ইশা ছাত্র আন্দোলন চট্টগ্রাম মহানগর

নাজিমউদ্দিন, চট্টগ্রাম প্রতিনিধি: ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন চট্টগ্রাম মহানগরের সভাপতি নুরুল বশর অাজিজির সভাপতিত্বে ও ইঞ্জিনিয়ার শাহীন হাওলাদা এর পরিচালনায় বুধবার চট্টগ্রাম স্টেশন রোডস্থ হোটেল মিসকায় শিক্ষাবিদ, সাংবাদিক ও শুভানুধ্যায়ীদের সম্মানে আয়োজিত আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশেরর কেন্দ্রীয় সহকারী সাংগঠনিক সম্পাদক ও ইসলামী যুব অান্দোলনের কেন্দ্রীয় সভাপতি কে এম আতিকুর রহমান।
প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, একটি দেশের সার্বিক উন্নতি নির্ভর করে সুশিক্ষিত জনগোষ্ঠীর উপর। ইসলামী শিক্ষার পাশাপাশি যুগোপযোগী শিক্ষায় শিক্ষিতরাই সুশিক্ষিত জনগোষ্ঠী। কুরআনী শিক্ষার অভাবে মানুষ চরিত্রহীন হচ্ছে।
তিনি বলেন, দেশে আইনের শাসনের দীর্ঘমেয়াদে অনুপস্থিতিতে অপরাধ ও মাদকের বিস্তার ঘটছে। মত প্রকাশ ও শান্তিপূর্ণ রাজনৈতিক কর্মসূচিতে সরকারের হস্তক্ষেপে সঠিক রাজনীতির চর্চা ব্যাহত হচ্ছে। বিচার বিভাগের প্রতি খোদ সরকারেরই এখন আর আস্থা আছে বলে মনে হয় না। যদি আস্থা থাকতো তবে বন্ধুকযুদ্ধের নামে মানুষ হত্যা করতো না।
তিনি অারো বলেন, স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশে জনগণের ট্যাক্সের টাকায় নির্বাচন কমিশনকে দিয়ে সরকার প্রহসনের নির্বাচন করে নির্বাচনী ব্যবস্থাকে ধ্বংস করে দিয়েছে। জনগণের ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠা মেরুদণ্ডহীন এই নির্বাচন কমিশন দিয়ে সম্ভব নয়। অবাধ সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য শক্তিশালী নির্বাচন কমিশন ও অন্তর্বর্তীকালীন নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে হবে।
এতে প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন, ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র অান্দোলনের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এইচএম কাউসার অাহমাদ। তিনি বলেন, দেশের বিভীষিকাময় পরিস্থিতির পটপরিবর্তনে একটি সর্বাত্বক গণবিপ্লব অপরিহার্য হয়ে পড়েছে। এ মুহুর্তে প্রয়োজন জাতীয় ঐক্যের। বাংলাদেশকে কল্যাণ রাষ্ট্র গঠনের প্রস্তুতি নিতে ছাত্র সমাজের প্রতি আহ্বান জানান তিনি। ইশা ছাত্র আন্দোলন গঠনমূলক কর্মকান্ডের মাধ্যমে ছাত্রসমাজ ও জনগণের আস্থা ফিরিয়ে আনতে কাজ করবে বলে আশা প্রকাশ করেন।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ চট্টগ্রাম মহানগর সভাপতি আলহাজ জান্নাতুল ইসলাম বলেন, সংবিধানের ৭ম অনুচ্ছেদে বলা আছে “রাষ্ট্রের সকল নাগরিক আইনের দৃষ্টিতে সমান এবং সকলে আইনের সমান আশ্রয় পাওয়ার অধিকারী” কিন্তু চলমান মাদক বিরোধী সাঁড়াশী অভিযানে এ পর্যন্ত নিহত কেউ আইনের আশ্রয় পায়নি। এটা সংবিধান কর্তৃক প্রদত্ত নাগরিক অধিকার হরণের নামান্তর।
উক্ত অনুষ্ঠানে অারো উপস্থিত ছিলেন একাদশ জাতীয় সংদস নির্বাচনে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ কর্তৃক মনোনীত চট্টগ্রাম-৮ আসনের সম্ভাব্য সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী ডাক্তার মুহা. ফরিদ খান, ৯ আসনের আলহাজ ফারুক হোসেন ভূঁইয়া, ১০ আসনের আলহাজ জান্নাতুল ইসলাম, ১১ আসনের লোকমান সওদাগরসহ শিক্ষাবিদ, সাংবাদিক ও শুভানুধ্যায়ীগণ।
বক্তারা বলেন, রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় বিচারবহির্ভুত মানুষ হত্যা চলছে। নিপীড়ন সরকারের অবিচ্ছেদ্য চরিত্রে পরিণত হয়েছে। মাদক দমনের মতো ভালো কাজেও সরকার নিপীড়নের আশ্রয় নিয়েছে। এ থেকে উত্তরণের জন্য আইন ও বিচার বিভাগকে কার্যকরী করা এবং দুর্নীতিকে সমূলে উৎখাতে পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে।
এতে আরো বক্তব্য রাখেন প্রফেসর আল্লামা ড. আ ফ ম খালিদ হোসাইন, প্রফেসর ড. বেলাল নুর আজিজি, চট্টগ্রাম জামিয়া বায়তুল করিমের সম্মানিত মুহতামিম আল্লামা ফরিদ আহমদ আনছারী, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মুহাম্মদ শহীদুল হক, চট্টগ্রাম আন্তর্জাতিক ইসলামী ইউনিভার্সিটি’র সহযোগী অধ্যাপক ড. মাসুদুর রহমান, মোজাহেরুল উলুম মাদ্রাসার মুহাদ্দিস মুহাম্মদ মুহসিন প্রমূখ।

আপনার মতামত দিন
0Shares

স্যোসাল মিডিয়াতে দেখুন আমাদের সংবাদ

Follow us on Facebook Follow us on Twitter Follow us on Pinterest 0

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     একই ক্যাটাগরিতে আরো সংবাদ