আজ ৪ঠা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৭ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা না থাকায় নৈতিক অবক্ষয় বাড়ছে: ইসলামী আন্দোলন

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মহাসচিব অধ্যক্ষ হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ বলেছেন, পারিবারিক, সামাজিক ও রাষ্ট্রীয় সংহতি শান্তিপ্রিয় প্রতিটি মানুষের মৌলিক অধিকার ও কাম্য। বর্তমান প্রেক্ষাপটে পরিবার-সমাজ, অফিস-আদালত, ব্যবসা-বাণিজ্য ও চিন্তা-চেতনায় বিরাজ করছে চরম অস্থিরতা। পারস্পরিক শ্রদ্ধা, আস্থা ও বিশ্বাস প্রায় শূন্যের কোঠায়। মানুষের মধ্যে প্রাণ আছে কিন্তু মন নেই। আবেগ অনুভূতি নিরুদ্দেশ। মানুষের অবচেতন হৃদয় শান্তির সন্ধানে ঘুরপাক খাচ্ছে। পারিবারিক, সামাজিক ও রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা না থাকায় নৈতিক অবক্ষয় দিন দিন বাড়ছে। সামাজিক ও রাষ্ট্রীয় স্থিতিশীলতা রক্ষায় আমাদেরকে সক্রিয় হতে হবে। নৈতিকতা ও মূল্যবোধের অবক্ষয় রোধে জাগ্রত করতে হবে সমাজকে। তবেই প্রতিষ্ঠা হবে সামাজিক নিয়ন্ত্রণ।
রবিবার (১৩ আগস্ট) রাজধানীর ভাটারাস্থ “মারকাযুস সুন্নাহ ঢাকা’র ১৪৩৭-৩৮ হিঃ শিক্ষা সমাপ্তকারী ছাত্রদের মাঝে সনদ প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।
জনাব আবু বকর ছিদ্দিকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত সভায় অন্যান্যের মাঝে বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট সমাজসেবক মীর আলমগীর হোসেন, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের এডঃ শওকত আলী হাওলাদার, মাওঃ জাহিদুল ইসলাম, মুফতী শরীফুল ইসলাম, মুফতী আমীর হোসাইন, মুফতী শরীফ আল মোস্তফা, মুফতী মহিউদ্দিন, মুফতী আবু সালেহ, মুফতী সালাহ উদ্দীন জনাব আব্দুল জলীল প্রমুখ।
তিনি আরো বলেন, মুসলিম উম্মাহর সকল সঙ্কট নিরসনে ওলামায়ে কিরামকেই নেতৃত্ব দিতে হবে। বাংলাদেশের চলমান সঙ্কটে জাতি আজ বিভ্রান্ত। এতে ইসলামের সমূহ ক্ষতির সম্ভাবনা রয়েছে। জাতি আজ আল্লাহভীরু সঠিক ও ইনসাফপূর্ণ নেতৃত্বহীনতায় ভোগছে। এই জাতিকে উদ্ধার করার পদক্ষেপ আমাদেরকেই নিতে হবে। আল্লাহভীরু নেতৃত্ব না থাকার কারণে সন্ত্রাস, দুর্নীতি, কায়েমী স্বার্থবাদ, খুন-ধর্ষণ, দুঃশাসনের মত সমস্যা দিনদিন প্রকট হবে। দেশে অশান্তি ও অস্থিতিশীল পরিবেশ তৈরী হবে। ফলে দেশের শক্রু, ইসলাম ও মুসলিম উম্মাহর বিরোধীতাকারীরা উপকৃত হবে।
তিনি আরো বলেন, ন্যায়বোধ ও চরিত্র বিধ্বংসী কাজের ফলে আত্মহত্যাসহ অন্যান্য অপরাধপ্রবণতা বেড়ে চলেছে। মা-বাবা, ভাই-বোন, স্বামী-স্ত্রী, আত্মীয়স্বজন ও বন্ধু-বান্ধব সম্পর্কের এমন নির্ভেজাল জায়গাগুলোতে ফাটল ধরেছে। মেয়ে ঐশী কর্তৃক নিজ পিতা-মাতাকে হত্যা, সাংবাদিক দম্পতি সাগর রূনি হত্যাকান্ড, নারায়ণগঞ্জের ত্বকি হত্যাকান্ড, বনশ্রীতে মায়ের হাতে দু সন্তান হত্যা, তুরাগে মাসহ তিন সন্তান হত্যা ও পুলিশ কর্মকর্তা বাবুলের স্ত্রী মাহমুদা হত্যাকান্ড সমাজকে চরমভাবে অস্থির করে তুলছে।

আপনার মতামত দিন
0Shares

স্যোসাল মিডিয়াতে দেখুন আমাদের সংবাদ

Follow us on Facebook Follow us on Twitter Follow us on Pinterest 0

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     একই ক্যাটাগরিতে আরো সংবাদ