আজ ২২শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৭ই মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

৫ই মে হেফাজত কর্মীদের উপর ১ লাখ ৫৪ হাজার গুলি ছোড়া হয়েছিল: হেফাজতে ইসলাম

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তথ্য অনুযায়ী, ২০১৩ সালের ৫ মে রাজধানীসহ বিভিন্ন স্থানে হেফাজতের ২২ কর্মীসহ ৩৯ জন নিহত হয়েছিল। আর হেফাজতের দাবি, শুধু শাপলা চত্বরেই নিহত হয়েছিল শতাধিক। এরপর বিভিন্ন সময় হেফাজত নিজেই নিহতদের তালিকা প্রকাশের কথা বললেও গত চার বছরে তারা তা করেনি। এবার এ সংগঠনটি সরকারের কাছে শাপলা চত্বরে নিহতদের ‘সঠিক’ সংখ্যা প্রকাশের দাবি জানিয়েছে।
ইসলাম ধর্মের অবমাননা বন্ধে আইন পাসসহ ১৩ দফা দাবিতে আন্দোলনে নেমেছিল অরাজনৈতিক সংগঠন হেফাজতে ইসলাম। এ সংগঠনের আমির হাটহাজারী দারুল উলুম মইনুল ইসলাম মাদরাসার মহাপরিচালক আল্লামা শাহ আহমদ শফী। তাকে সামনে রেখে এই আন্দোলন শুরু হলেও তার চূড়ান্ত রূপ দেখা যায় ২০১৩ সালের ৫ মে। এ ঘটনায় রাজধানীসহ বিভিন্ন স্থানে হেফাজতের ২২ কর্মীসহ ৩৯ জন নিহত হন। ৮৩ মামলায় ৩ হাজার ৪১৬ জনের নাম উল্লেখসহ ৮৪ হাজার ৯৭৬ জনকে আসামি করা হয় বলে পুলিশ সদর দফতর জানায়। এসব মামলায় হেফাজতে ইসলাম, ইসলামী ঐক্যজোট, জামায়াতে ইসলামী, ইসলামী ছাত্রশিবির, নেজামে ইসলাম, খেলাফত মজলিশ, খেলাফত আন্দোলন, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম, বিএনপি, যুবদল ও ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় নেতাকর্মীদের আসামি করা হয়।
নিহতদের তালিকা প্রকাশ প্রসঙ্গে হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদী গণমাধ্যমকে বলেন, ‘আমাদের আমির আল্লামা শফী বলেছেন, ৫ই মে সরকারই আমাদের কর্মীদের হত্যা করেছে তাই সরকারই তালিকা করবে। এরপরও যদি হেফাজতেকে কিছু করতে হয় তবে হেফাজতের আমির সিদ্ধান্ত নেবেন।’ তিনি আরও বলেন, ‘প্রথম থেকেই আমরা বলেছি, ৫ মে কাউকে আমরা মারতে যাইনি। সেদিন সরকার আমাদের দাঁড়াতে দেয়নি, জানাজাও পড়েতে দেয়নি, আমরা তালিকা কোথা থেকে করবো। এজন্য সরকারের দায়িত্ব নিহতেদের সঠিক সংখ্যা প্রকাশ করা। আমাদের কর্মীদের উপর ১ লাখ ৫৪ হাজার গুলি ছোড়া হয়েছিল।’
এদিকে, ২০১৩ সালে ঢাকা, চট্টগ্রাম, নারায়ণগঞ্জসহ হওয়া নাশকতার ৮৩ মামলার মধ্যে এখনও ৬৮ মামলার তদন্ত শেষ হয়নি। এর মধ্যে রাজধানীতে মামলা দায়ের হয়েছিল ৫৩টি। গত চার বছরে পুলিশ ১৫টি মামলার অভিযোগপত্র দিয়েছে। ৫ মে নিয়ে কর্মসূচি প্রসঙ্গে হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম-মহাসচিব মুফতি ফয়জুল্লাহ বলেন, ‘হেফাজতের সব সিদ্ধান্ত দেন আহমদ শফী। আমরা সব সময় দেশের মানুষের এবং সব শহীদদের জন্য দোয়া করি।’
হেফাজতের নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে করা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন মুফতি ফয়জুল্লাহ। তিনি বলেন, ‘আহমদ শফীর নেতৃত্বে হেফাজতে ইসলাম শুরু থেকেই নির্ভীক। ১৩ দফা দাবিসহ অন্যান্য লক্ষ্য পূরণের বিষয়ে অটল আছে এবং আাগামীতেও থাকবে।’
 
সূত্র: কওমি নিউজ

আপনার মতামত দিন
2.9K+Shares

স্যোসাল মিডিয়াতে দেখুন আমাদের সংবাদ

Follow us on Facebook Follow us on Twitter Follow us on Pinterest 0

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     একই ক্যাটাগরিতে আরো সংবাদ