আজ ১১ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

কাশ্মিরে মুসলিম নির্যাতনের বিরুদ্ধে বিশ্বমুসলিমকে ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে

ভারতের কাশ্মিরে মুসলিম নির্যাতন ও ধর্ষণের সংবাদে গভীর উদ্বেগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাই।
আজ (বুধবার) এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, কাশ্মিরে মুসলিম নির্যাতন বন্ধে বিশ্বমুসলিমকে ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, ভারত মুসলমানদের সহ্য করতে পারছে না, তাই তারা মুসলিম শূণ্য করতেই এধরণের নির্যাতনের পথ বেছে নিয়েছে। ভারতের বিভিন্ন প্রদেশে বিনা উস্কানীতে মুসলিম নিধন, নির্যাতন, ধর্ষণ করছে কট্টরপন্থি হিন্দু সম্প্রদায়ের সন্ত্রাসী ও জঙ্গিরা।। ধর্মনিরপেক্ষতাবাদের ধ্বজাধারী ভারত বিনা অপরাধে সেদেশের মুসলমানদের উপর ঢালাওভাবে নির্যাতন করছে। কেবলমাত্র মুসলমান হওয়ার কারণেই ভারত মুসলমানদের উপর নির্যাতনের স্টিমরোলার চালাচ্ছে। আযান ও নামায আদায়ে বাধা দেয়া হচ্ছে। বাড়ি বাড়ি গিয়ে মুসলমানদের খুঁজে খুঁজে  বের করে নির্যাতন করছে, ধর্ষণ করছে। বিশ্ব মানবাধিকার সংস্থাগুলো মুসলিম নির্যাতনের এ দৃশ্য দেখেও না দেখার ভান করে এড়িয়ে যাচ্ছে। বিগত কয়েকদিন যাবৎ ভারতের কাশ্মিরসহ বিভিন্ন প্রদেশে মুসলমানদের উপর অব্যাহতভাবে নির্যাতন, ধর্ষণ মুসলিমবিশ্বকে স্তব্ধ করে দিয়েছে। নির্যাতনের লোমহর্ষক এ ঘটনা কোনভাবে মেনে নেয়া যায় না।
পীর সাহেব চরমোনাই ভারতের কাশ্মিরে ভয়াবহ মুসলিম নির্যাতনের বিরুদ্ধে মুসলিমবিশ্বকে ঐক্যবদ্ধ জিহাদের ডাক দেয়ার আহ্বান জানান।
পীর সাহেব চরমোনাই বলেন, বাংলাদেশ যেহেতু বিশ্বের দ্বিতীয় মুসলিম প্রধান দেশ, সে হিসেবে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে ভারতের কাশ্মিরসহ বিভিন্ন প্রদেশে মুসলিম নির্যাতনের বিরুদ্ধে কঠোর প্রতিবাদ জানানোর আহ্বান জানান।  তিনি বলেন, কাশ্মিরে মুসলিম নির্যাতন বন্ধ না করলে বাংলাদেশের মুসলমানরা নিরবে বসে থাকবে না। প্রয়োজনে বাংলাদেশের মুসলমানরা কাশ্মির অভিমুখে লংমার্চ করে মুসলমানদের রক্ষা করবে। তিনি কাশ্মিরের স্বাধীনতা ফিরিয়ে দেয়ার আহবান জানান।

আপনার মতামত দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category