আজ ৫ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৮ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

মেননের ‘মোল্লাতন্ত্র’ কথার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে ইসলামী আন্দোলন

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা জেলা নেতৃবৃন্দ বলেছেন, ইসলামই একমাত্র সাম্প্রদায়িকমুক্ত। অন্যান্য সকল মত ও পথ সাম্প্রদায়িকযুক্ত। যারা মুসলমান না হয়ে মুসলমান দাবি করে মানুষকে ধোকা দেয় তারাই সাম্প্রায়িক। রাশেদ খান মেননরা সাম্প্রদায়িক। কেননা ইসলাম ও মুসলমান, আলেম-ওলামা তারা সহ্য করতে পারে না। শনিবার কাদিয়ানী সম্প্রদায়ের এলাকা পরিদর্শনকালে রাশেদ খান মেনন বলেছেন ‘মোল্লাতন্ত্র বিভেদ সৃষ্টি করছে’ মোল্লাতন্ত্র এখনও বাংলাদেশের সামনে বড় বিপদ হিসেবে রয়ে গেছে’ ওলামায়ে কেরামদেরকে মোল্লা বলে গালি দিয়ে মেননরা নিজেদেরকে নাস্তিক হিসেবে পরিচয় দিয়েছে।

পুরানা পল্টনস্থ কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক যৌথ সভায় নেতৃবৃন্দ একথা বলেন। এতে বক্তব্য রাখেন মুহাম্মদ আবু হানিফ মিয়া, হাফেজ জয়নুল আবেদীন, আলহাজ্ব শাহাদাত হোসাইন, ডা. কামরুজ্জামান, হাসমত আলী, মুফতী আব্দুল করীম, মাওলানা ইলিয়াস হোসাইন, আব্দুর রাজ্জাক প্রমুখ।

নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, ওলামায়ে কেরাম দেশের শান্তি-শৃঙ্খলা প্রতিষ্ঠায় কাজ করে, যার নজির দেশে বহু আছে। তারা বলেন, আহমদীয়া সম্প্রদায় এদেশে অমুসলিম হিসেবে বসবাস করতে কারো আপত্তি নেই। কেবল আপত্তি তারা মুসলমান না হয়ে নিজেদেরকে মুসলমান বলে দাবি করে সরলমনা মুসলমানদের ধোকা দিচ্ছে। মুহাম্মদ সা.কে সর্বশেষ ও সর্বশ্রেষ্ট নবী না মানলে মুসলমান থাকা যায় না। আহমদিরা মুহাম্মদ সা.কে শেষ নবী না মেনে মির্জা গোলাম আহমদ কাদিয়ানীকে নবী হিসেবে মানে, তাই তারা কাফের।

এদেশে হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টানসহ অন্যান্য ধর্মাবলম্বি বসবাস করছে। তাদেরকে তো কেউ অমুসলিম ঘোষণার দাবি করছে না। তদ্রুপ কাদিয়ানীরা তথা আহমদি মুসলিম নামধারীরা অমুসলিম হয়ে এদেশে বসবাস করুক, এতে কারো আপত্তি নেই। বরং তাদের জানমালের নিরাপত্তার জন্যও আমরা দাবি করব। কাজেই সাম্প্রদায়িক ইসলাম নয়, বরং যারা ইসলামকে সহ্য করতে পারে না মেননরা এবং কাদিয়ানীরা।

আপনার মতামত দিন
0Shares

স্যোসাল মিডিয়াতে দেখুন আমাদের সংবাদ

Follow us on Facebook Follow us on Twitter Follow us on Pinterest 0

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     একই ক্যাটাগরিতে আরো সংবাদ